বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪

১০০ মা পেলেন মাদার্স ডে পুরস্কার

প্রকাশিত: ০৫:০৪, ০৬ জুলাই ২০২৪ | ২০

মাদার্স ডে ক্যাম্পেইনে পুরস্কার পেলেন ১০০ মা। এর মধ্যে শীর্ষ ৫০ মা এবং লটারির মাধ্যমে বিজয়ী ১০ মা পেলেন গ্রান্ডপ্রাইজ। শুক্রবার (৫ জুলাই) সন্ধ্যায় ঢাকার লেকশোর হোটেলে নিউট্রিশন পার্টনার শক্তি+ এবং লার্নিং পার্টনার গুফির যৌথ আয়োজনে বিশেষ মা দিবসের বিশেষ ক্যাম্পেইনের গ্র্যান্ড ইভেন্টে বিজয়ী মায়েদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

গত মে মাসজুড়ে চলা এই ক্যাম্পেইনের থিম ছিল ‘মা বোঝে সেরা তাই, মায়ের জন্য সেরাটাই।’

ক্যাম্পেইনের অংশ হিসেবে, টগুমগু তার অ্যাপে একটি কুইজ প্রোগ্রাম আয়োজন করা হয়। যেখানে সারা দেশ থেকে ১৫ হাজারেরও বেশি মা অংশগ্রহণ করেন। কুইজে মায়েদের জন্য সন্তানের পুষ্টি, শিক্ষা ও মানসিক বিকাশ সম্পর্কিত প্রশ্ন রাখা হয়।

মায়েরা হলেন তাদের সন্তানের জন্য অনুপ্রেরণা। শিক্ষা, শক্তি ও সান্ত্বনার প্রধান উৎস। তাদের প্রভাব শুধু ঘরেই নয়, চার দেওয়ালের বাইরেও বিস্তৃত। যেন সীমার মাঝে অসীম এসব মায়েদের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাতে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি ব্যাবহৃত প্যারেন্টিং অ্যাপ টগুমগু, গত বছরের মতো এবারও তাদের অনুষ্ঠানে বারডেম জেনারেল হাসপাতালের প্রিন্সিপাল নিউট্রিশনিস্ট শামসুন নাহার (মহুয়া) ‘সুস্বাস্থ্যের জন্য পুষ্টিকর ও নিরাপদ খাবার’-বিষয়ক সেশন পরিচালনা করেন। এতে তিনি মা ও শিশুর জন্য সঠিক পুষ্টির গুরুত্ব তুলে ধরেন।

ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালের ইসিডি বিশেষজ্ঞ এবং চাইল্ড সাইকোলজিস্ট তারানা আনিস ‘আনন্দময় প্যারেন্টিং’-বিষয়ক একটি সেশন পরিচালনা করেন, যেখানে তিনি প্রারম্ভিক শেখানো এবং ইতিবাচক প্যারেন্টিং প্র্যাকটিসের গুরুত্ব তুলে ধরেন।

শক্তি+ এর উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান গ্রামীণ ডানোন ফুডস লিমিটেডের সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং ডিরেক্টর সুরাইয়া সিদ্দিকা বলেন, ‘মায়েরা আমাদের পরিবারের মেরুদণ্ড এবং তাদের সুস্থতা ও ভালো থাকার ওপর নির্ভর করে সন্তানদের ভবিষ্যৎ এবং সমাজের সামগ্রিক উন্নয়ন’।

এই আয়োজনের মাধ্যমে মায়েদের মাঝে পুষ্টি বার্তা, শিশুদের আনন্দের সাথে শিক্ষাদান ও ইতিবাচক প্যারেন্টিং প্র্যাকটিসের গুরুত্ব তুলে ধরা হয়।

লাইট অফ হোপের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়ালিউল্লাহ ভূঁইয়া বলেন, ‘গুফিতে আমরা আনন্দের মাধ্যমে শেখায় বিশ্বাস করি। এই ক্যাম্পেইন আমাদের মায়েদের সঙ্গে মজার ও ইন্টারঅ্যাক্টিভ উপায়ে সংযুক্ত হয়ে শিশুদের পুরো বিকাশের গুরুত্ব তুলে ধরতে সাহায্য করেছে।’

প্রায়ই নিজেদের সুস্থতাকে উপেক্ষা করে মায়েরা যে নিঃস্বার্থ ভালোবাসা এবং যত্নে আমাদের লালন করে থাকেন। তাদের প্রতিও যত্নশীল হতে সচেতনতা বাড়ানোও এই ক্যাম্পেইনে অন্যতম উদ্দেশ্য বলে জানান টগুমগুর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডা. নাজমুল আরেফিন।

এই ক্যাম্পেইনে গিফট পার্টনার হিসেবে ছিল ভ্রমণ সেবাবিষয়ক প্রতিষ্ঠান শেয়ার ট্রিপ, ফার্নিচার ব্র্যান্ড বহু ও গ্রিড।

Mahfuzur Rahman

Publisher & Editor