বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

কর্মজীবী নারীর ৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

প্রকাশিত: ০৪:৪৪, ০৪ মে ২০২৪ | ৩৩

‘সকল ক্ষেত্রে অধিকার মর্যাদায়, নারী থাকবে পৃথিবীর বৃহৎ আঙিনা’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে এবং ‘সকল শ্রমিকের জন্য সামাজিক ন্যায়বিচার ও শোভন কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করো’- এই প্রতিপাদ্য নিয়ে মহান মে দিবস ও কর্মজীবী নারীর ৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাব চত্বরে শ্রমিক সমাবেশ ও লাল পতাকা মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কর্মজীবী নারীর সহসভাপতি উম্মে হাসান ঝলমলের সভাপতিত্বে এবং অতিরিক্ত নির্বাহী পরিচালন সানজিদা সুলতানার সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন কর্মজীবী নারীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শিরীন আখতার।

আরও বক্তব্য দেন দক্ষিণ এশিয়াভিত্তিক নারীবাদী সংগঠন এশিয়া প্যাসিফিক ফোরাম অন উইমেন, ল অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এপিডব্লিউএলডি) এর ৮টি দেশ (ভারত, কম্বোডিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, মালয়শিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, ফিলিপাইন এবং বাংলাদেশ) এর প্রতিনিধিরা, কর্মজীবী নারীর সহসভাপতি ও ট্রেড ইউনিয়ন নেত্রী শাহীন আক্তার পারভীন, শ্রমিক নেত্রী রাবেয়া আক্তার, শেখ শাহনাজ, নার্গিস আক্তার এবং জাকিয়া সুলতানা প্রমুখ।

সমাবেশের প্রধান অতিথি শিরীন আখতার বলেন, আমাদের সবাইকে মনে-প্রাণে বিশ্বাস করতে হবে, শ্রম কখনো সস্তা নয়, শ্রমিক দয়ার পাত্র নয়। আমরা নারীরা এখনো কর্মক্ষেত্রে সমমজুরি, সমমর্যাদা এবং কর্তৃত্ব তৈরি করতে পারিনি। এজন্য আমাদের এখনো বহুদূর যেতে হবে। নারীশ্রমিকদের অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে তাদের কর্মের ধারাবাহিকতা রক্ষায় কর্মক্ষেত্রে মানসম্মত এবং কার্যকর শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

দক্ষিণ এশিয়াভিত্তিক নারীবাদী সংগঠন এশিয়া প্যাসিফিক ফোরাম অন উইমেন, ল অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এপিডব্লিউএলডি)-এর প্রোগ্রাম অফিসার অ্যান্ডি কিপ্টা, ইন্দোনেশিয়ান ট্রেড ইউনিয়ন নেতা এ্মিলিয়া ইয়ান্তি, কর্মজীবী নারীর শ্রমিক সমাবেশের উত্থাপিত দাবিসমূহের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে বলেন, সব বৈষম্য দূর করে নারী শ্রমিকের জন্য সামাজিক ন্যয়বিচার ও শোভন কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

মিরপুর অঞ্চলের গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা আঞ্চলিক ফোরাম এর নেত্রী জাকিয়া সুলতানা, গৃহশ্রমিকদের কাজের কোনো নির্দিষ্ট কর্মঘণ্টা এবং মাতৃত্বকালীন ছুটি শ্রম আইনে অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানান।

সভাপতিরর বক্তব্যে উম্মে হাসান ঝলমল বলেন, কর্মক্ষেত্রে নারী শ্রমিকরা প্রতিনিয়ত বৈষম্যের শিকার হয়ে থাকে। এসব বৈষম্য দূরীকরণে আইনের সঠিক প্রয়োগ করতে হবে। যেখানে শ্রমিকের ন্যায্য অধিকার নিয়ে কার্পণ্য করা হবে, সেখানেই সংগঠিত হয়ে অধিকার আদায় করতে হবে।

সমাবেশ শেষে একটি বর্ণাঢ্য লাল পতাকা মিছিল প্রেস ক্লাব থেকে পল্টন মোড় প্রদক্ষিণ করেন।

Mahfuzur Rahman

Publisher & Editor