শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪

শিশু সুরক্ষায় বেড়েছে ৪০ শতাংশ সমাজকর্মী

প্রকাশিত: ০৩:২৩, ১৬ মার্চ ২০২৪ | ২৬

বাংলাদেশে শিশু সুরক্ষা কার্যক্রম শক্তিশালী করতে সরকার ইউনিসেফের সহায়তায় ৪০ শতাংশ সমাজকর্মীর সংখ্যা বাড়িয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের আর্থিক সহায়তায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় শিশু সুরক্ষা কার্যক্রমের জন্য ১ হাজার ২০০ জনের বেশি নতুন সমাজকর্মী নিয়োগ করেছে। যার ফলে শিশু সুরক্ষায় নিয়োজিত সমাজকর্মীর মোট সংখ্যা ৪ হাজারে উন্নীত হয়েছে।

শিশু সুরক্ষা সামাজিক সেবায় (চাইল্ড প্রোটেকশন সোশ্যাল সার্ভিসেস) অন্তর্ভুক্তির প্রথম ধাপ হিসেবে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) ঢাকায়, সমাজসেবা অধিদপ্তর ও ইউনিসেফ যৌথভাবে সমাজকর্মীদের জন্য তিন দিনব্যাপী ‘প্রশিক্ষকদের জন্য প্রশিক্ষণ’ কার্যক্রম সম্পন্ন করেছে।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার শিশুদের সব ধরনের ক্ষতি থেকে সুরক্ষিত রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। নতুন এই সমাজকর্মীদের নিয়োগ দেশের শিশু সুরক্ষা ব্যবস্থা উন্নত করতে আমাদের অঙ্গীকারের একটি নজির।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াটলি বলেন, সমাজকর্মীদের সংখ্যা ৪০ শতাংশ বৃদ্ধির মাধ্যমে শিশু সুরক্ষা নিশ্চিতকরণে সরকারের এই প্রয়াসকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন সাধুবাদ জানায়। আমাদের এই সমন্বিত প্রয়াসে আমরা সত্যিই গর্বিত।

বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি শেলডন ইয়েট বলেন, শিশুদের সুরক্ষায় নিয়োজিত সমাজকর্মীদের সংখ্যা বাড়ানো যেমন গুরুত্বপূর্ণ, সমান গুরুত্বপূর্ণ তাদের মাঝে সঠিক তথ্য ও জ্ঞানের সন্নিবেশ ঘটানো। কেননা, শিশু ও তাদের পরিবার যখন কোনো সহিংসতার শিকার হয়, তখন এই সমাজকর্মীরাই তাদের পাশে অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবা নিয়ে দাঁড়ায়।

Mahfuzur Rahman

Publisher & Editor